ঢাকা বুধবার, এপ্রিল ২৪, ২০২৪

Popular bangla online news portal

Janata Bank
Rupalibank

স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় নৌকার কর্মীদের হামলার অভিযোগ


নিউজ ডেস্ক
৭:৩২ - বুধবার, জানুয়ারী ৩, ২০২৪
স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় নৌকার কর্মীদের হামলার অভিযোগ

বরিশাল-৫ (সদর) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সালাহউদ্দিন রিপনের স্ত্রীর গণসংযোগে হামলার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহিদ ফারুকের কর্মীদের বিরুদ্ধে। এ সময় সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে নৌকার কর্মীরা সাংবাদিকদের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালায়।

মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) বিকেলে নগরীর মেজর এম এ জলিল সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী সালাহউদ্দিন রিপনের স্ত্রী মিফতাহুল জান্নাত লুনা বলেন, গতকাল বিকেলে নিয়মিত প্রচারণার অংশ হিসেবে বটতলা বাজার ও নবগ্রাম রোড এলাকায় গণসংযোগ করছিলাম। এ সময় নৌকার কর্মী-সমর্থকরা আকস্মিক জড়ো হয়ে আমাদের হাতে থাকা লিফলেট নিয়ে টেনে ছিঁড়ে ফেলে। তারা আমাদের গালিগালাজও করেন। তারা আমার হাত থেকে মোবাইল ফোন নিয়ে ভেঙে ফেলে।

ট্রাক প্রতীকের আরেক কর্মী বলেন, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর (জাহিদ ফারুক) লোকজন গালিগালাজ করতে করতে আমাদের ঘিরে ফেলে টানাহেঁচড়া শুরু করে দেয়। তারা হুমকি দেন, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর বাসা যে এলাকায় সেখানে নৌকা ছাড়া আর কোনো প্রার্থীর প্রচারণা চলবে না।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, নবগ্রাম রোড এলাকার শামীম নামের একজন নৌকার কর্মী খুবই বাজেভাবে স্বতন্ত্র প্রতীকের প্রচারণায় আসা নারী কর্মীদের সঙ্গে আচরণ করেন। ঘটনার সময়ে সাংবাদিকরা উপস্থিত হলে তাদের ক্যামেরাও ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন।

এ বিষয়ে নৌকা প্রতীকের কর্মী পরিচয় দেওয়া অভিযুক্ত শামীম বলেন, আমি তো কাউকে মারিনি। সাংবাদিকরা আসায় তাদের ক্যামেরা নামাতে বলেছি। এটা বলতেই পারি। এতে দোষের কিছু নেই।

উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতিতে পুলিশে খবর দেওয়া হলে তারা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেন বলে জানান সালাহউদ্দিন রিপনের স্ত্রী মিফতাহুল জান্নাত লুনা।

স্বতন্ত্র প্রার্থী সালাউদ্দিন রিপন বলেন, আমার কর্মী-সমর্থকদের ওপর অকারণে বাধা, হামলা ও হয়রানি করা হচ্ছে। নৌকার কর্মী-সমর্থকরা চাচ্ছেন আমি যেন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াই। আজকে শায়েস্তাবাদের গাজীর খেয়াঘাট এলাকায় আমার কর্মীদের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে দুই নারী কর্মী আহত হয়েছেন।

এ বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিচুল হক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। যার বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ তাকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগও দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।