ঢাকা বুধবার, অক্টোবর ৫, ২০২২

Popular bangla online news portal

ছেলের বিরুদ্ধে আদালতে মায়ের মামলা!


নিউজ ডেস্ক
১১:৫৮ - মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২২
ছেলের বিরুদ্ধে আদালতে মায়ের মামলা!

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:: ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতারণার অভিযোগে ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪১) এর বিরুদ্ধ আদালতে মামলা করেছেন এক বৃদ্ধা মা। বৃদ্ধা রোকেয়া আক্তার (৬০) ঠাকুরগাঁও সদরের বালিয়া ইউনিয়নের সিঙ্গিয়া কলোনী পাড়ার মৃত আলহাজ্ব আবু তাহের এর স্ত্রী। রফিকুল ইসলাম ওই বৃদ্ধার বড় ছেলে। 


মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ঠাকুরগাঁও চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে মামলা করেন বৃদ্ধা রোকেয়া আক্তার। পরবর্তীতে অভিযোগ আমলে নিয়ে ম্যাজিস্ট্রেট নিত্যানন্দ রায় আসামি রফিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তারের আদেশ দেন। 

ভুক্তোভুগী বৃদ্ধা রোকেয়া আক্তার জানায়, আমার স্বামী আলহাজ্ব আবু তাহের ২০১৫ সালে ইন্তেকাল করেন। মারা যাওয়ার আগে জমি-জমা সহায় সম্পত্তি দুই ছেলে তিন মেয়ের জন্য রেখে যান। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকেই সন্তানেরা ঠিকমতো দেখাশোনা করে না। ২০২১ সালে আমার বড় ছেলে রফিকুল ইসলাম প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে বাকি সন্তান্দের বাদ দিয়ে একটি ভুয়া ওয়ারিশান সার্টিফিকেট তৈরী করেন। সেখানে নিজেকে মৃত তাহেরের একমাত্র সন্তান উল্লেখ করেন রফিকুল। এরপর থেকেই বড় ছেলে আমার ভরণপোষণ দেয়া সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেন। কথায় কথায় আমাকে আমার স্বামীর ভিটা থেকে বের করে দেওয়ার দেয়। পিতার সম্পদের ভাগ নিয়ে ঝামেলা থাকায় অন্যান্য সন্তানেরাও মুখ ফিরিয়ে নেয়। তাই উপায় না পেয়ে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছি। 

রোকেয়া আক্তারের ছোট ছেলে রেজাউল করিম বলন, আমার বাবা আবু তাহের প্রচুর সম্পদ রেখে গেছেন। আমি ঢাকায় চাকুরী করায় তেমন একটা যোগাযোগ রাখতে পারিনি। এখন শুনছি আমার বড় ভাই রফিকুল ইসলাম ভুয়া সনদ বানিয়ে সব সম্পদের মালিকানা নিতে চাইছে। আমার মায়ের কাছে জবাব চাইলে তিনিঅ কোনো সদুত্তর দিতে পারছে না। 

অভিযুক্ত রফিকুল ইসলামের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে কথা বলা সম্ভব হয়নি। 

এব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই সিদ্দীক হোসেন জানান, থানা থেকে মামলার তদন্তভার আমাকে দেয়া হয়েছে। বৃদ্ধা রোকেয়া আক্তারের করা মামলায় রফিকুল ইসলাম পলাতক থাকায় গ্রেপ্তার করা যায়নি। আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।