• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট, ২০২১
সর্বশেষ আপডেট : ২৩ আগস্ট, ২০২১

টিকার প্রথম ডোজ পাননি নিবন্ধিত ১ কোটি ৮৭ লাখ মানুষ

অনলাইন ডেস্ক
[sharethis-inline-buttons]

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশে এখন দ্বিতীয় ডোজের টিকা কার্যক্রম চলছে। টিকা স্বল্পতায় গত ১২ আগস্ট থেকে মর্ডানা এবং ১৪ আগস্ট থেকে সিনোফার্মের প্রথম ডোজ টিকা প্রয়োগ কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। সবমিলিয়ে নিবন্ধিত এক কোটি ৮৭ লাখ লোক এখনও প্রথম ডোজ পাননি।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, রোববার (২২ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত করোনার টিকা পেতে জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে তিন কোটি ৪৯ লাখ ২৩ হাজার ৮৩৬ জন নিবন্ধন করেছেন। এ ছাড়া পাসপোর্টের মাধ্যমে নিবন্ধন করেছেন আরও চার লাখ ১২ হাজার ১৭৪ জন। সব মিলিয়ে তিন কোটি ৫৩ লাখ ৩৬ হাজার ১০ জন টিকা নিতে নিবন্ধন করেছেন। এ সময় পর্যন্ত প্রথম ডোজ নিয়েছেন এক কোটি ৬৬ লাখ ৬১ হাজার ৪১২ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৬৫ লাখ ৭৫ হাজার ৪৭৩ জন। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত মোট দুই কোটি ৩২ লাখ ৩৬ হাজার ৮৮৫ ডোজ টিকা বিতরণ করা হয়েছে।

এদিকে, গতকাল পর্যন্ত দেশে টিকা এসেছে তিন কোটি ১৭ লাখ ৬৮ হাজার ৭২০ ডোজ। বর্তমানে মজুদ আছে ৮৫ লাখ ৩১ হাজার ৮৩৫ ডোজ। অন্যদিকে, নিবন্ধন করা এক কোটি ৮৬ লাখ ৭৪ হাজার ৫৯৮ জন এখনও প্রথম ডোজের অপেক্ষায় আছেন।

রাজধানীর বিভিন্ন টিকা কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, করোনাভাইরাসের টিকা পেতে কেন্দ্রগুলোতে মানুষের হুড়োহুড়ি কমছেই না। শুরুতে টিকা নিয়ে অনেকটা অনাগ্রহ থাকলে এখন আগ্রহ বেড়েছে অনেকগুণ। এ অবস্থায় অনেকটা বিপাকে পড়তে হচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগকে।

রাজধানীর বিভিন্ন টিকা কেন্দ্রে গিয়ে অপেক্ষমাণদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ভোর থেকে কেন্দ্রে এসে সিরিয়াল ধরেছেন। যাবে পরে ভোগান্তিতে পড়তে না হয়। তবে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষার পর টিকা নিয়ে বেশ খুশি মনে অনেককে বের কেন্দ্র থেকে হতে দেখা গেছে। আবার অনেকে অব্যবস্থাপনার কথাও জানিয়েছেন।

নিবন্ধন টিকা পেতে দেরি হওয়া প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, টিকা পাওয়া সাপেক্ষে বিতরণ পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। নিবন্ধন করলেই সঙ্গে সঙ্গে টিকা পাওয়া যাবে- বিষয়টি এমন নয়। সিরিয়াল অনুযায়ী নিবন্ধিত ব্যক্তিরা পর্যায়ক্রমে টিকার আওতায় আসবেন। টিকা কেনার পাশাপাশি দেশীয়ভাবে উৎপাদনের প্রক্রিয়াও শুরু হতে যাচ্ছে। সুতরাং টিকা নিয়ে সংকট হবে না। তবে অপেক্ষা করতে হবে। সবাইকে ধাপে ধাপে টিকার আওতায় আনা হবে।

করোনার টিকা কর্মসূচি জোরদার করতে টিকাকেন্দ্রে বুথ বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। এরইমধ্যে সংশ্লিষ্টদের এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, টিকার জট খুলতে কেন্দ্রগুলোতে বুথ বাড়ানো এবং প্রয়োজনে সাবসেন্টার করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, টিকার জন্য নিবন্ধন করে অনেকেই এখনও টিকা নিতে অপেক্ষমাণ রয়েছেন। অনেকেই টিকার জন্য এসএমএস পাচ্ছেন। তাদের দ্রুত সময়ে টিকা নিশ্চিতে বুথ সংখ্যা বাড়ানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে টিকা কেন্দ্রগুলোতে।

আশাবাদ প্রকাশ করে তিনি আরও বলেন, টিকা পেতে সবাইকেই কম-বেশি অপেক্ষা করতে হবে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যে অবস্থার পরিবর্তন হবে।
স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে, গতকাল পর্যন্ত (২২ আগস্ট) দেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কোভিশিল্ড প্রয়োগ হয়েছে ১ কোটি ১০ লাখ ১৬ হাজার ২২ ডোজ। চীনের সিনোফার্মের টিকা প্রয়োগ হয়েছে ৯৩ লাখ ৩২ হাজার ৩৯৯ ডোজ। ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা প্রয়োগ হয়েছে ৯৪ হাজার ৬৩৮ ডোজ। আর মডার্নার টিকা প্রয়োগ হয়েছে ২৭ লাখ ৯৩ হাজার ৮২৬ ডোজ।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহিতাদের মধ্যে পুরুষ ৬৮ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯১ এবং নারী ৪১ লাখ ৫১ হাজার ১৩১ জন। এই টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে ৫১ লাখ ৯০ হাজার ৭৫৯ জন দ্বিতীয় ডোজ এবং ৫৮ লাখ ২৫ হাজার ২৬৩ জন প্রথম ডোজ নিয়েছেন। দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহণকারী পুরুষ ৩২ লাখ ৫২ হাজার ১৮৩ এবং নারী ১৯ লাখ ৩৮ হাজার ৫৭৬ জন। আর প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণকারী ৩৬ লাখ ১২ হাজার ৭০৮ জন পুরুষ এবং নারী ২২ লাখ ১২ হাজার ৫৫৫ জন।

এদিকে চীনের সিনোফার্মের টিকার প্রয়োগ ১৯ জুন থেকে শুরু হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে গণটিকাদান কর্মসূচিতে অদ্যাবধি এ টিকা গ্রহিতাদের মধ্যে পুরুষ ৫১ লাখ ৫৩ হাজার ৮৩২ এবং নারী ৪১ লাখ ৭৮ হাজার ৫৬৭ জন। এই টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে ৮২ লাখ ৮০ হাজার ২৪০ জন প্রথম ডোজ এবং ১০ লাখ ৫২ হাজার ১৫৯ জন দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণকারী পুরুষ ৪৫ লাখ ৫২ হাজার ৫০৪ এবং নারী ৩৭ লাখ ২৭ হাজার ৭৩৬ জন। দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহণকারী ৬ লাখ ১ হাজার ৩২৮ জন পুরুষ এবং নারী ৪ লাখ ৫০ হাজার ৮৩১ জন।

ঢাকার ৭টি কেন্দ্রে এ পর্যন্ত ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে পুরুষ ৮১ হাজার ২ এবং নারী ১৩ হাজার ৬৩৬ জন। এই টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে ৫১ হাজার ২৩৯ জন প্রথম ডোজ এবং ৪৩ হাজার ৩৯৯ জন দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণকারী পুরুষ ৪৪ হাজার ৯১ এবং নারী ৭ হাজার ১৪৮ জন। দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহণকারী ৩৬ হাজার ৯১১ জন পুরুষ এবং নারী ৬ হাজার ৪৮৮ জন।

এদিকে ১৩ জুলাই থেকে দেশের সিটি করপোরেশনগুলোতে মডার্নার টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। এ পর্যন্ত এই টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে পুরুষ ১৬ লাখ ৩৪ হাজার ৮৩১ এবং নারী ১১ লাখ ১ হাজার ২৪৩ জন। এই টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে ২৫ লাখ ৪ হাজার ৬৭০ জন প্রথম ডোজ এবং ২ লাখ ৮৯ হাজার ১৫৬ জন দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণকারী পুরুষ ১৪ লাখ ৫৭ হাজার ১৩৯ এবং নারী ১০ লাখ ৪৭ হাজার ৫৩১ জন। আর দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহণকারী ১ লাখ ৭৭ হাজার ৬৯২ জন পুরুষ এবং নারী ১ লাখ ১১ হাজার ৪৬৪ জন।

[sharethis-inline-buttons]

আরও পড়ুন