গাইবান্ধা সদর উপজেলার খোলাহাটী ইউনিয়নের কুমারপাড়া গ্রামে একটি পরিবারের টিউবওয়েলের পানিতে চেতনা নাশক ট্যাবলেট মিশিয়ে বাড়ীর সকলকে অচেতন করে গরু বিক্রির ৪ লক্ষাধিক টাকাসহ স্বর্নালঙ্কার নিয়ে গেছে সংঘবদ্ধ এক চক্র।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, এনায়েত মিয়া পরিবারের ভরণ পোষণের জন্য ৬টি গাভী পালন করেন। কোরবানির ঈদে সেই গাভী ৬টি বিক্রি করে টাকাগুলো বাড়িতে রাখেন। প্রতিদিনের মত রাতের খাবার খেয়ে পারিবারের সকলে ঘুমিয়ে পড়েন। এই সুযোগে অজ্ঞান পার্টির চক্রটি তার ঘরে ঢুকে গরু বিক্রির চার লক্ষাধিক টাকাসহ স্বর্নালঙ্কার নিয়ে যান।

সকালে বাড়ির লোকজন না উঠলে এলাকার পাড়া প্রতিবেশি এসে তাদের ডাকার পরও না উঠলে তাদের মনে সন্দেহ জাগে। পরে দেখা যায় তারা সকলেই ঘুমিয়ে আছে কিন্তু দরজা খোলা রয়েছে। অনেক ডাকাডাকির পর তার স্ত্রী জেগে উঠলে তিনি দেখেন তাদের গরু বিক্রির ৪লক্ষাধিক টাকা ও স্বর্নালঙ্কার গুলো আর নেই।

এ খবর লেখা পর্যন্ত বাড়ির কয়েক জন অচেতন অবস্থায় ছিলেন। পরে তাদের গাইবান্ধা সদর হাসপাতে নেয়া হয়। এ ঘটনায় সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

খোলাহাটী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ সামাদ আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন ইদানিং এলাকায় অজ্ঞান পার্টির প্রবনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই প্রশাসনের তৎপরতা প্রয়োজন।