মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে আফ্রিকায় করোনার সঙ্গে সম্পর্কিত মৃত্যু বেড়েছে ৪৩ শতাংশ। এছাড়া এই মহাদেশে ভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশে দেশে সৃষ্টি হয়েছে আইসিইউ বেড ও অক্সিজেনের তীব্র সংকট। বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) একথা জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে উত্তর আফ্রিকার দেশগুলোসহ সমগ্র আফ্রিকা অঞ্চলে জুলাই মাসের ৫ থেকে ১১ তারিখ পর্যন্ত ৬ হাজার ২৭৩ জন মারা গেছেন। এর আগের সপ্তাহে এই সংখ্যাটি ছিল ৪ হাজার ৩৮৪ জন। অর্থাৎ কেবল এক সপ্তাহের ব্যবধানেই আফ্রিকার দেশগুলোতে করোনায় মৃত্যু বেড়েছে ৪৩ শতাংশ।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে ডব্লিউএইচও’র আফ্রিকা অঞ্চলের পরিচালক ড. মাতশিডিসো মোইতি জানান, ‘গত পাঁচ সপ্তাহ ধরেই আফ্রিকায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বাড়ছে। এটা খুব উদ্বেগজনক যে, করোনায় বিপর্যস্ত এই অঞ্চলের বিভিন্ন দেশের হাসপাতালগুলোর কার্যক্রম অনেকটা ভেঙে পড়ার মুখে পৌঁছে গেছে।’

কঙ্গোর রাজধানী থেকে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত এই সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, ‘চিকিৎসার পর্যাপ্ত সুযোগ ও অবকাঠামো না থাকা দেশগুলোর স্বাস্থ্য ব্যবস্থা আরও ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে রয়েছে। এসব দেশে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিতে আরও বেশি সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মী, অবকাঠামো ও সামগ্রিক সরবরাহ ব্যবস্থার দিকে নজর দেওয়া প্রয়োজন।’

ডব্লিউএইচও বলছে, আফ্রিকার দেশগুলোতে করোনায় মৃত্যু বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে কোভিড-১৯ টিকার সংকটও। এছাড়া ভাইরাসের অতিসংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট এখন পর্যন্ত আফ্রিকার ২১টি দেশে শনাক্ত হয়েছে।