পাকিস্তান সুপার লিগের শুক্রবারের ম্যাচে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরসের বোলারদের নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা করলেন ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের কিউই ওপেনার কলিন মুনরো। তার সাইক্লোন ইনিংসে মাত্র ১০ ওভারেই ১৩৭ রান করে ১০ উইকেটের বড় জয় পেয়েছে ইসলামাবাদ।

আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে ম্যাচের প্রথম ইনিংসেই ফল নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিল। কেননা পুরো ২০ ওভার খেলে মাত্র ১৩৩ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল কোয়েটার ইনিংস। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে যে এত দ্রুত ম্যাচ জিতে নেবে ইসলামাবাদ, তা হয়তো ভাবেনি কেউ। মাঠে এই কাজই করে দেখাল কলিন মুনরো ও উসমান খাজার জুটি।

কোয়েটার করা ১৩৩ রানের জবাবে অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ম্যাচ শেষ করেছেন ইসলামাবাদের দুই বাঁহাতি ওপেনার মুনরো ও খাজা। মাত্র ১০ ওভারের মধ্যে ছয়জন বোলার ব্যবহার করেও জুটি ভাঙতে পারেননি কোয়েটার অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। যার ফলে মিলেছে ষষ্ঠ ম্যাচে পঞ্চম পরাজয়।

ব্যাট হাতে রুদমূর্তি ধারণ করা ইনিংসে মাত্র ৩৬ বলে ৯০ রান করেছেন কলিন মুনরো। অর্থাৎ তার খেলা প্রতি বল থেকে এসেছে আড়াই রান করে। ইনিংসের প্রথম ওভারেই ৪ চারের মারে আসে ১৯ রান। যা অব্যাহত থাকে দশম ওভারের শেষ বলে ম্যাচ জেতার আগপর্যন্ত।

সাইক্লোন তোলা ইনিংসটিতে ১২ চারের পাশাপাশি ৫টি বিশাল ছক্কা হাঁকিয়েছেন মুনরো। যার মানে ৮০ শতাংশ রান শুধু বাউন্ডারি থেকেই করেছেন তিনি। অপরপ্রান্তে খাজা অপরাজিত ছিলেন ২৭ বলে ৪০ রান করে। যেখানে ছিল ৬ চার ও ১ ছয়ের মার।

এর আগে কোয়েটার দলীয় সংগ্রহ একশ পার হয়েছে মূলত জ্যাক ওয়েদারাল্ডের কল্যাণে। তার ব্যাট থেকে আসে ৩৫ বলে ৪৩ রান। এছাড়া ২৩ বলে ২৬ রান করেন আজম খান। ইনিংসের ১১তম ওভারে মাথায় বাউন্সারের আঘাত পান আন্দ্রে রাসেল। যার ফলে কনকাসনে পড়ে আর ফিল্ডিংয়ে নামতে পারেননি।

ইসলামাবাদের পক্ষে বল হাতে ৪ ওভারে মাত্র ১২ রান খরচায় ২ উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ ওয়াসিম। এছাড়া হাসান আলি ও মোহাম্মদ মুসার ঝুলিতেও গেছে ২টি করে উইকেট। শুধু ১ উইকেট পেলেও, ৪ ওভারে মাত্র ১৮ রান খরচ করেছেন আকিফ জাভেদ।