প্রীতি ম্যাচে হোঁচট খেয়েছে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি। ডেনমার্কের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে তারা। তবে, জয় পেয়েছে আরেক সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড। অস্ট্রিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছে ইংলিশরা।

জোয়াকিম লোর বিদায়ের সময় এসেছে। বিশ্বকাপজয়ী কোচকে হাসিমুখেই বিদায় জানাতে চায় জার্মানরা। দুই বছর পর ডাইমানশ্যাফট শিবিরে পুরনো দুই ছাত্র থমাস মুলার আর ম্যাট হামেলসকে ফিরিয়ে হয়তো শেষের হিসেব-নিকেশও সেরে ফেলতে চেয়েছেন কোচ। কিন্তু, ডেনমার্কের বিপক্ষে ম্যাচে লো’এর নজর কাড়তে পারেননি মুলার-হামেলসরা।

২৮ ও ৩৫ মিনিটে দারুণ দু’টি সুযোগ হারায় জার্মানি। ভক্তদের হতাশ করেছেন লিরয় সানে-সার্জ গেন্যাব্রিরা। প্রথমার্ধের বাঁশি বাজার আগে একবার ক্রসবারের বাধায় গোলবঞ্চিত হন গেন্যাব্রি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভাঙে ডেডলক। জটলার মধ্যে বল পেয়ে স্কোর করেন ফ্লোরিয়ান নুহস।

গোল শোধের চেষ্টা করে গেছে ডেনমার্ক। জায়ান্টদের চাপে রাখে এরিকসেনরা। ৭০ মিনিটে পলসেনের গোলে সমতায় ফেরে ডেনিশরা। দর্শকশূন্য মাঠ থেকে শেষ পর্যন্ত আর জয় নিয়ে ফেরা হয়নি জায়ান্টদের।

তবে, মিডলসবরোর রিভারসাইড স্টেডিয়ামে থ্রি লায়নদের ম্যাচটা উপভোগই করেছেন দীর্ঘদিন পর গ্যালারিতে ফেরা দর্শকরা। হ্যারি কেইন-আলেক্সান্ডার আরনল্ডরা শুরু থেকেই ছিলেন আক্রমণাত্মক।

প্রতিপক্ষ অস্ট্রিয়া অতি রক্ষণাত্মক। দু’একবার গেছে কাউন্টার অ্যাটাকেও। অবশ্য গোলস্কোরিং কোনো শট ছিলোনা বললেই চলে।

অবশেষে ৫৬ মিনিটে ইংল্যান্ডকে লিড এনে দেন সাকা। ইংলিশদের জার্সিতে আর্সেনাল ফরোয়ার্ডের অভিষেক গোলটা বাহবাই পেয়েছে গ্যালারিতে উপস্থিত দর্শকদের। শেষ পর্যন্ত এই গোলটাই জয় এনে দিয়েছে সাউথগেটের দলকে।