১৯ বছর বয়সে ধর্ষণের শিকার হয়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন মার্কিন পপ তারকা লেডি গাগা। সম্প্রতি অপরাহ উইনফ্রে শো’তে গাগা তার জীবনে ঘটে যাওয়া এই অন্ধকারাচ্ছন্ন অধ্যায়ের কথা জানান। যা পরবর্তীতে তার জীবনকে বদলে দেয়। 

গাগা বলেন, এক সংগীত প্রযোজক আমাকে সরাসরি কাপড় খুলতে বলেন। রাজি হইনি। এরপর তিনি আমার সব অ্যালবাম পুড়িয়ে ফেলার হুমকি দেন। তিনি আমাকে ধর্ষণ করে ঘরের এক কোনায় ফেলে চলে যান। কারণ, আমি অসুস্থ হয়ে পড়েছিলাম। আমি স্রেফ ভয়ে জমে গিয়েছিলাম। আমার বমি চলে আসে। এ ঘটনায় আমি মানসিকভাবে ভেঙে পড়ি। বেশ কয়েক বছর ধরে আমার চিকিৎসা চলে।

ধর্ষণের শিকার নারীর কষ্ট জানি আমি মন্তব্য করে অস্কারজয়ী এই সংগীত তারকা আরও বলেন, আমি ‘মিটু মুভমেন্ট’ নিয়ে খুব একটা স্বস্তিবোধ করি না। আামি ওই ব্যক্তির নাম উচ্চারণ করতে চাই না। বাকি জীবনে তার চেহারাও দেখতে চাই না। দীর্ঘ সময় আমি নিজের শরীরকে ঘৃণা করেছি। আমার এই ট্রমা কাটিয়ে উঠতে সময় লেগেছে। কিন্তু আমি ফিরে এসেছি। আমি কেবল সবাইকে এই বার্তা দিতে চাই, এমন জঘন্য ঘটনা ঘটার পরেও জীবন শেষ হয়ে যায় না। জীবনের কাছ থেকে আপনার তখনো অনেক উপহার পাওয়া বাকি।

গাগা ২০০৫ সালে ঘটে যাওয়া ওই ঘটনার বর্ণনা দেন ‘টিল ইট হ্যাপেনস টু ইউ’ গানে। ‘দ্য হান্টিং গ্রাউন্ড’ নামে একটি প্রামাণ্যচিত্রে গানটি ব্যবহার করা হয়। ওই প্রামাণ্যচিত্রটি ২০১৬ সালে অস্কারে মনোনীত হয়।