ফিলিস্তিনের আল-আকসা মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায়র তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে অবস্থানকারী জনগণের প্রতি শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করে দেশটির রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আব্বাসকে চিঠিও দিয়েছেন তিনি।

বুধবার (১২ মে) প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে পাঠানো এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর নির্বিচার বোমাবর্ষণ চলছেই। এতে এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫ জনে। আহত হয়েছেন এক হাজারের বেশি। জবাবে তেল আবিবে দুই শতাধিক রকেট হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার সপক্ষের সংগঠন হামাস। এতে দুই ইসরায়েলি নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছে তেল আবিব।

এদিকে রকেট হামলার কড়া মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু। রয়টার্স সূত্রে জানা গেছে উভয়পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

মঙ্গলবার রাতে গাজা উপত্যকায় দফায় দফায় বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। এতে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বহু স্থাপনা।

ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে বিমান হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইরান। ইসরায়েলি বর্বরতার নিন্দা জানিয়েছে আরব লীগ ও আফ্রিকান ইউনিয়ন।

এদিন দখলদার ইসরাইলের হামলার পাল্টা জবাব দিয়েছে হামাস। তেল আবিব লক্ষ্য করে ১৩০টি রকেট হামলার দাবি করেছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার সপক্ষের সংগঠনটি। এতে বেশ কয়েকজন ইসরায়েলি হতাহতের খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে এক বক্তব্য নিজেদের ভূখণ্ডে রকেট হামলার জন্য হামাসকে অবশ্যই মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু। এমনকি বিমান হামলা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

তেল আবিবে রকেট হামলার নিন্দা জানিয়েছে জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্র। একই সঙ্গে চলমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে চলমান সহিংসতা নিয়ে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। চলমান সংঘাত দ্রুত বন্ধের আহ্বান জানান তিনি।