দেশের করোনা পরিস্থিতি এখনো স্বাভাবিক নয়। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যা। করোনর দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় বাড়ানো হয়েছে লকডাউন। এমন অবস্থায় জীবন-জীবিকার প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে যেতে হচ্ছে অনেককেই। তাদের সতর্ক এবং সচেতন করার জন্য সরকারের পাশাপাশি কাজ করছে বিভিন্ন সংস্থা। শোবিজ তারকারাও যার যার অবস্থান থেকে মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করছেন।

দেশে করোনার এ পরিস্থিতি মানুষের জন্য কী বার্তা দেবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে চিত্রনায়কা নুসরাত ফারিয়া বলেন, ‘আমি সবাইকে ঘরে থাকার পরামর্শ দেব। খুব বেশি প্রয়োজন না থাকলে বাড়ির বাইরে যাওয়া দরকার নেই। এখনো বিভিন্ন জায়গায় অযথা মানুষ ঘোরাফেরা করেন, আড্ডা দিয়ে সময় পার করেন, স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই। তাদের জন্য একটি কথাই বলতে চাই- জীবনের ওপরে কিছু নাই।’

নুসরাত ফারিয়া মনে করেন, সকলের সমন্বিত প্রচেষ্টায় করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দেওয়া সম্ভব। তাই এ লড়াইয়ে টিকে থাকতে হলে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মনে চলা উচিত।

লকডাউনের এ সময়টাতে নিজেকে ঘরবন্দি করেছেন ঢালিউডের এ হটেস্ট ডিভা। একান্ত প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাচ্ছেন না। বাইরে গেলেও স্বাস্থ্যবিধি মনে চলছেন। আপাতত বাতিল করেছেন লাইট-ক্যামেরার সামনের কাজ।

এদিকে নুসরাত ফারিয়াকে ভ্যাকসিন চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ঘোষণা করেছে ইউনিসেফ। তিনি বিশ্বাস করেন, একটি স্বাস্থ্যকর প্রজন্ম গড়ে তোলার পেছনে টিকার অনেক অবদান রয়েছে। তাই সবাইকে সঠিক সময়ে টিকা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।