নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা গাউছিয়া এলাকায় ঢাকা সিলেট মহাসড়কে দীর্ঘ ৮ ঘন্টা যানজটে দুরপাল্লার যাত্রীরা অতিষ্ট হয়েছে পড়েছে।

১২ এপ্রিল সোমবার দুপুর ১২ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত ঢাকা সিলেট মহাসড়কের কাচপুর যাত্রামুড়া হতে ভুলতা গাউছিয়া গোলাকান্দাইল চৌরাস্তায় দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়।

এদিকে এশিয়ান হাইওয়ে কাঞ্চন ব্রীজ থেকে সোনারগাওয়ের বস্তল পর্যন্ত। শুধু মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ে রোডেই যানজট নয়। ঢাকা মহাসড়কের পার্শ্ব রাস্তা রূপসী থেকে কাঞ্চন, ভুলতা টু মুড়াপাড়া, সাওঘাট থেকে আড়াইহাজার, কাঞ্চন চাঁনটেক্সটাইল থেকে আড়াইহাজারের ছনপাড়া এলাকায় দীর্ঘ যানজটের কারনে দূর পাল্লার যাত্রী, সরকারি বেসরকারি অফিসের কর্মচারী, গার্মেন্টস কর্মী, রোগীসহ হাজারো যাত্রীদের চরম ভোগান্তী পোহাতে হয়েছে। রাত ৮ টার পর যানজট কিছুটা স্বাভাবিক হলে গাড়ী চলাচল শুরু হয়।

সিলেট গামী বাসের যাত্রীরা সাংবাদিকদের জানায়, “সকাল ১০টায় ঢাকা থেকে রওনা হয়েছি এখন বিকাল ৫ টা বেজে গেছে যানজটের কারনে ভুলতা গাউছিয়া ছেড়ে যেতে পারি নাই।”

এদিকে কাঞ্চন এলাকায় মালবাহী ট্রাকের ড্রাইভার রহিম মিয়া জানান, “কাঞ্চন ব্রীজ থেকে ২ ঘন্টায়ও কাঞ্চন কালাদী ছাড়তে পারিনি । এদিকে গাড়ীর মালের মালিকরা ফোনের পর ফোন দিচ্ছে এখনও কেন গন্তব্যে পৌছাতে পারি নাই।”

যানজটের বিষয়ে কর্মরত টিআই মনিরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সকাল থেকেই এই দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয় । সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আপনারাতো দেখতেই পাচ্ছেন যানজটের অবস্থা। কোথায় কোনো সড়ক দূর্ঘটনা ঘটেনি। আমরা ট্রাফিক পুলিশরা সকাল থেকেই যানজট স্বাভাবিক করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছি। এখনও পর্যন্ত যানজট স্বাভাবিক করতে পারিনি। আশা করি অতি শীঘ্রই যানজট স্বাভাবিক হবে।