পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটের পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় ৪ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানবাহনের দীর্ঘ সারি। কঠোর লকডাউনের খবরে স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে পদ্মা-যমুনা পার হচ্ছে মানুষ।

ঘাট কর্তৃপক্ষ জানায়, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে রোববার (১১ এপ্রিল) রাত থেকে ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ বাড়তে থাকে। সোমবার (১২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তা ঘাটের ৪ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে ছোট ও মাঝারি যানবাহনের পাশাপাশি মানুষকে ট্রাকে করেও ঘরে ফিরছে মানুষ। তবে অনেকে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না।

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ও আরিচা কাজির হাট নৌরুটে ২০টি ফেরি চলাচল করছে। এ ছাড়া বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যানবাহন ও যাত্রীর সংখ্যা বাড়ছে। কঠোর লকডাউনের খবরেই নানা অজুহাতে মাস্ক না পরেই গাদাদাদি করে নৌরুট পার হচ্ছেন তারা।

জরিনা বেগম নামের এক যাত্রী জানান, ঢাকাতে চা বিক্রয় করে ও ছেলে হাকারি করে চলত ভাড়ার বাসার সংসার। লকডাউনে সব বন্ধ হয়ে যাবে তাই এই ছোট ট্রাক ভাড়া করে ছেলেমেয়ে ও অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে বাড়ি যাই। সেখানে এক বেলা খেয়ে বাচলেও ভাড়া দেয়া লাগবে না।

পাটুরিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাম জানান, আমরা জরুরি যানবাহনকে অগ্রাধিকার দিচ্ছি। এ ছাড়া অন্যান্য কোনো কথা বলতে রাজি নয় তিনি।