গাজীপুরে পার্লারের আড়ালে অসামাজিক কার্যকলাপ করানোর মামলায় গ্রেফতারকৃত কাউন্সিলরকে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বাসন থানা পুলিশ অভিযুক্ত কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীকে আদালতে পাঠায়। এর আগে গতকাল শুক্রবার রাতে রাজধানীর দক্ষিণখান থেকে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বাসন মেট্রোপলিটন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কামরুল ফারুক বলেন, পার্লারের আড়ালে দেহ ব্যবসায় আরও কেউ জড়িত কি না, রিমান্ডে এনে খতিয়ে দেখা হবে।

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে শহরের চান্দনা এলাকার ওই কাউন্সিলরের মালিকানাধীন আনন্দ বিউটি পার্লার থেকে এক ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরের দিন রোজীসহ দুজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা দায়ের করে ওই কিশোরী। ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিলেন সিটি করপোরেশনের ১৬, ১৭, ১৮ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজী।

উল্লেখ্য, মোটা অঙ্কের বেতনের আশ্বাসে এক কিশোরীকে পার্লারের চাকরি দিয়েছিলেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজী। পরে তাকে পার্লারে কাজের বদলে বিভিন্ন সময়ে পাঠানো হতো দেহ ব্যবসায়। অভিযোগ রয়েছে, ওই কাউন্সিলর তাকে জিম্মি করেই এ ব্যবসা করে আসছিলেন।