মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতির মাঝে দীর্ঘ বিরতির পর আবারও মাঠে ফিরেছেন টাইগাররা। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৯ জুলাই থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অধীনে শুরু হয়েছে ক্রিকেটারদের অনুশীলন। তবে জাতীয় দলের পেসার তাসকিন আহমেদ প্রথম অনুশীলনে নামলেন পঞ্চম দিনে।

যদিও আরও আগে থেকেই ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলন শুরু করেন তিনি। তবে এবার যোগ দিয়েছেন বিসিবির অনুশীলনে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) করোনা বিরতির পর প্রথমবার বিসিবি’র তত্ত্বাবধানে অনুশীলন শুরু করেন এই ডানহাতি পেসার। এর আগে মোহাম্মদপুরের বসিলায় অনুশীলন করেছেন তিনি। ইনজুরির কারণে বারবার দল থেকে ছিটকে যাওয়ায় ফিটনেস নিয়ে এবার বেশ সচেতন তাসকিন।

বিসিবির সূচি অনুযায়ী, সবার শেষে অনুশীলনে আসেন পেসার তাসকিন আহমেদ। নির্ধারিত সময়ের কিছুটা সময় দেরিতে আসেন তিনি। মুশফিকুর রহিম চলে যাওয়ার পর মিরপুর স্টেডিয়ামের মূল মাঠে ফিজিওকে সঙ্গে নিয়ে রানিং করেন এই তরুণ ডানহাতি পেসার।

বিসিবির অনুশীলনের প্রথম পর্বের শেষ দিন, আগামী ২৬ জুলাই আবার অনুশীলন করবেন তাসকিন।

এ দিকে, গত তিন দিন বৃষ্টির বাগড়া উপেক্ষা করেই অনুশীলন করেন ক্রিকেটাররা। তবে অনুশীলনের পঞ্চম দিনে এসে রৌদ্রোজ্জ্বল দিনে পূর্ণাঙ্গ অনুশীলন করেছেন সবাই। ১৯ জুলাই অনুশীলনের পর দিন থেকেই বৃষ্টির মধ্যেই অনুশীলন করেছে ক্রিকেটাররা।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) মিরপুরের হোম অব ক্রিকেটে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী অনুশীলন করেন চার ক্রিকেটার। সকালে অনুশীলন করেছেন পেসার শফিউল ইসলাম। এদিনই প্রথম গ্লাভস হাতে অনুশীলন করেছেন মুশফিকুর রহিম। এরপর অনুশীলনে আসেন মোহাম্মদ মিঠুন। আর শেষে প্রথমবারের মতো অনুশীলন করেন পেসার তাসকিন আহমেদ।

এছাড়া ঢাকার বাইরে সিলেটের সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সৈয়দ খালেদ আহমেদ ও নাসুম আহমেদ, খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে মেহেদী হাসান ও নুরুল হাসান সোহান এবং চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নাঈম হাসান ব্যক্তিগতভাবে বিসিবি’র অধীনে অনুশীলন করছেন।