মহামারি করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ তাণ্ডবে রীতিমতো আতঙ্কিত পুরো বিশ্ব। নিত্যদিন বিশ্বজুড়ে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এই মরণব্যাধির সংক্রমণ। সংকটপূর্ণ এই সময়ে নিজেকে সুস্থ রাখা অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং। এ জন্য শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা। এ ক্ষেত্রে উপকার মিলবে গোলমরিচে।

দীর্ঘদিন থেকে অতিপরিচিত এই উপাদানটি অনেক খাবারেই ব্যবহার হয়ে আসছে। একই সঙ্গে উপকারের দিক থেকেও এর জুড়ি মেলা ভার। গোলমরিচের ওষধি গুণ শরীরকে রোগমুক্ত রাখতে আর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। জেনে নিন করোনাকালে গোলমরিচ খেলে মিলবে যত উপকার-

* অতিরিক্ত ওজন তো আজকাল প্রায় অনেকেরই সমস্যা। শরীর থেকে বাড়তি ফ্যাট টেনে নিতে গরম পানিতে গোলমরিচ খুব উপকারী। ক্যালোরি পুড়িয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে গোলমরিচ।

* ঠাণ্ডা লাগলে গরম দুধে গোলমরিচ কষ্ট থেকে উপশম দেয়। যাদের প্রায়ই ঠাণ্ডা লাগে বা ঘন ঘন হাঁচি হয়, তারা যদি কয়েকটা গোলমরিচ রোজ চিবিয়ে খেয়ে নেন, উপকার পাবেনই পাবেন।

* কচি নিমপাতার সঙ্গে তিন-চারটি গোলমরিচ সকালে খালি পেটে চিবিয়ে খেলে সুগারও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

* আপনার কি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে? সকালবেলা অনেকটা সময় যুদ্ধ করতে হয়? এক কাপ হালকা গরম পানিতে লেবুর রস আর গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে টানা কয়েক দিন খেলে গ্যাস-এর সমস্যা কমে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

* আপনার যদি ডিহাইড্রেশনের সমস্যা থাকে, আপনাকে মৃদু গরম পানির সঙ্গে গোলমরিচ খেতেই হবে। ফলে শরীরে ক্লান্তি জমতে পারে না।

* ত্বককে মসৃণ রাখে গোলমরিচ।

 

* খুব হালকা গরম পানিতে গোলমরিচের গুঁড়া ফেলে একটু নেড়ে নিয়ে হালকা হালকা চুমুক দিয়ে খেলে শরীরে শক্তি ও কর্মক্ষমতা বাড়ে। কাজ করার এনার্জি পাওয়া যায়। শরীরে পানির মাত্রা কমতে পারে না। সকাল বেলা এটা যদি খেয়ে নেন, আপনি সারা দিন মুক্তি পাবেন অ্যাসিডিটির সমস্যা থেকে।

এতগুলো সুফল যখন আছেই, তখন আর দেরি না করে গোল গোল ছোট দানাগুলোকে সকাল থেকেই সঙ্গী করে ফেলুন।