সাউদাম্পটনে গত ম্যাচের একাদশে স্টুয়ার্ট ব্রডকে রাখা হয়নি বলে ম্যাচ চলাকালীন সময়েই ক্ষোভ ঝেড়েছিলেন ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ এই উইকেট শিকারি। তবে ওল্ড ট্রাফোর্ডে দ্বিতীয় টেস্টের একাদশে জায়গা হয়েছে তার।

জায়গা তো হয়েছেই সঙ্গে নতুন এক ইতিহাস গড়লেন দুই ব্রড। স্টুয়ার্ট ব্রড তার বাবা ক্রিস ব্রডকে এই ম্যাচে পেয়েছেন আম্পায়ার হিসেবে।

করোনাভাইরাসের এই সময়ে বেশ সতর্ক আইসিসি। তাই ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডকে (ইসিবি) জানিয়ে দিয়েছিল ম্যাচ যেন স্থানীয় আম্পায়ার দিয়ে পরিচালনা করা হয়।

সে হিসেবে প্রথম টেস্টেও আইসিসির এলিট আম্পায়ার ক্রিস ব্রড ছিলেন ম্যাচ পরিচালকের দায়িত্বে তবে ছেলে স্টূয়ার্ট ব্রড একাদশের বাইরে থাকায় কিছুদিন পরে হয়েছে এই ইতিহাস।

এমন ইতিহাস এর আগে আরও একবার দেখেছিল ক্রিকেট। ২০০৬ সালে নাইরোবিতে কেনিয়া-বাংলাদেশ ম্যাচে খেলেছিলেন হিতেস মোদি। ওই ম্যাচে আম্পায়ারের দায়িত্বে থাকা বাবা সুভাস মোদি হিতেসকে আউট দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মোর্তজার আবেদনে সাড়া দিয়ে। ওয়ানডের ইতিহাসের হিতেস আর সুভাস মোদি হলেও টেস্ট ক্রিকেটে দুই ব্রডের ইতিহাস এবারই প্রথম।