আগামী বছর থেকে ব্যক্তি শ্রেণির কর দাতারা ই-চালানে (ইলেকট্রনিক ট্রেজারি চালান) কর দিতে পারবেন এবং ই-চালান বাধ্যতামূলক করা হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) সেগুনবাগিচায় এনবিআর সম্মেলন কক্ষে ভ্যাট ই-পেমেন্ট সিস্টেমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, অর্থ বিভাগ একটি সফটওয়্যার ডেভেলপ করছে। যাকে তারা বলছে ই-চালান। এর মাধ্যমে যে কেউ বাংলাদেশ ব্যাংকের ট্রেজারিতে টাকা জমা দিতে পারবেন। জমার একটি ইলেট্রনিক ট্রেজারি চালানও পাবেন। প্রথম দিকে সাধারণ চালানের মতোই একটি চালান পাবেন, যাতে সিকিউরিটি বারকোড থাকবে। আমরা অর্থ সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেছি। আমরা প্রথম অবস্থায় ব্যক্তি শ্রেণির করদাতাদের জন্য ই-চালান চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

আবু হেনা বলেন, এ বছর কর অঞ্চল-৪, ঢাকায় প্রাথমিকভাবে পাইলটিং করা হবে। এই কর অঞ্চলের করদাতারা ই-চালানের মাধ্যমে কর পরিশোধ করার সুযোগ পাবেন। জমার সঙ্গে সঙ্গে একটি কনফারমেশন নম্বর আসবে। সে নম্বর যাচাই করলে দেখা যাবে, তা বাংলাদেশ ব্যাংকের ট্রেজারিতে জমা হয়ে গেছে। পাইলটিং সফল হলে আমরা এর বিস্তার করবো।

তিনি বলেন, কিছুদিন পর আমরা চিন্তা করবো, অনলাইন ভ্যাট রিটার্ন দাখিল বাধ্যতামূলক করার। আইনগতভাবে বাধ্যতামূলক করার আগে আমাদের প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে। সিস্টেমের ত্রুটি-বিচ্যুতি শেষ করতে হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন, কম্পোট্রলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল বাংলাদেশ মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আসাদুর ইসলাম, অর্থ সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, অতিরিক্ত সচিব ও পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান এ বি এম আব্দুল ফাত্তাহ, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক হুমায়ুন কবীর।