সাড়ে ৬ হাজার বছর পরে ফের চোখের সামনে ‘নিওওয়াইজ’। ভারতসহ এর আশেপাশের আকাশে ১৪ জুলাই থেকে টানা ১৮ দিন ধরে দেখা যাবে ধূমকেতু ‘নিওওয়াইজ’। প্রায় সাড়ে ছয় হাজার বছর পর পৃথিবীবাসী এই ধূমকেতুটিকে আবারো দেখতে পারবে।

এই ধূমকেতুর রয়েছে দুটো লেজ! যার বৈজ্ঞানিক নাম- ‘সি/২০২০-এফ-৩’। সাড়ে তিন মাস আগে, তাকে দেখতে পায় নাসার উপগ্রহ ‘নিওওয়াইজ’। তাই তার নামেই ধূমকেতুর ডাকনাম দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা জানান, ‘নিওওয়াইজ’ এবার এতই কাছে আসছে যে ভারতসহ এর আশেপাশের এলাকার মানুষ খালি চোখেই টানা ১৮ দিন ধরে তাকে দেখতে পারেন। সূর্যাস্তের পরে ঘণ্টাখানেক ধরে উত্তর-পশ্চিম আকাশে তাকে দেখা যাবে।

সূর্যের কাছে এলে ধূমকেতুর মাথার ধুলোবালি জমা পুরু বরফ গলতে শুরু করে এবং তা ছিটকে পড়তে থাকে। তাকেই আমরা লেজ বলে চিনি। ‘নিওওয়াইজ’-এর লেজ আবার একজোড়া। ঝাঁটার মতো সেই একজোড়া লেজও দেখা যেতে পারে দূষণহীন, পরিষ্কার আকাশ থাকলে।

৩০ জুলাই এই ধূমকেতুটিকে সবচেয়ে বেশিক্ষণ ধরে দেখা যাবে। সেটি থাকবে সপ্তর্ষিমণ্ডলের নীচে। জুলাই শেষ হয়ে গেলে আর এই ধূমকেতুটিকে খালি চোখে দেখা যাবে না। তবে সূর্যাস্তের পরে টেলিস্কোপ দিয়ে আগস্ট পর্যন্ত দৃশ্যমান হবে ‘নিওওয়াইজ’।

এর আগে ১৯৬৫ সালে টেলিস্কোপে দেখা গিয়েছিল ‘ইকেয়া সাকি’ ধূমকেতুটিকে। ১৯৮৬-তে খালি চোখে দেখা গিয়েছিল ‘হ্যালির ধূমকেতু। ১৯৯৬ সালে টেলিস্কোপে ধরা দিয়েছিল ‘হায়াকাতুকে’। ১৯৯৭ সালে খালি চোখে দেখা গিয়েছিল ‘হেল বপ’।

সূত্র-আনন্দবাজার।