দুদিন সূচকের উত্থানের পর আবারও দরপতন হয়েছে দেশের পুঁজিবাজারে। সোম ও মঙ্গলবারের পর বুধবার (৪ মার্চ) বড় দরপতন হয়েছে। এদিন ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং ওষুধ ও রসায়ন খাতের প্রায় সব কোম্পানির শেয়ারের দাম কমায় দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ৫৬ পয়েন্ট। আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সূচক কমেছে ১৭৪ পয়েন্ট। এর আগে টানা সাত কার্যদিবস দরপতন হয়েছিলো।

বুধবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম ও লেনদেন। এর ফলে সোম ও মঙ্গলবার দু’দিন উত্থানের পর দরপতন হলো। তার আগে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি সূচক বৃদ্ধির পর গত রোববার পর্যন্ত টানা সাত কার্যদিবস দরপতন হয়।

ডিএসই ও সিএসইর তথ্যানুযায়ী, বুধবার ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৬ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৪০৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ১৫ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৪৭০ এবং ডিএসইএস সূচক ১৪ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ২৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫১০ কোটি ৬৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬০৯ কোটি ৬ লাখ ৭৪ হাজার টাকা। লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ৮০টির, কমেছে ২৪৩টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

সিএসইর প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৭৪ পয়েন্ট কমে ১৩ হাজার ৪৯১পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হয়েছে ২০ কোটি ২২ লাখ ১০ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২৪ কোটি ৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা।